Recents in Beach

খাগড়াছড়ির গুইমারাতে ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুপের গোপন আস্তানায় নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযানঃ বিদেশী অস্ত্র উদ্ধার



পার্বত্য চট্টগ্রামে আইন শৃংখলা পরিবেশ স্বাভাবিক ও স্থিতিশীল রেখে শান্তি ও সম্প্রীতির পরিবেশ বজায় রাখার ল
ক্ষ্যে নিরাপত্তাবাহিনী সর্বদা কাজ করে আসছে। সে লক্ষ্যে খাগড়াছড়ি জেলার গুইমারা সেনা রিজিয়নের নেতৃত্বেও তাদের দায়িত্বপূর্ণ এলাকায় বিভিন্ন আঞ্চলিক সশস্ত্র সন্ত্রাসী দল সমূহের দৌরাত্ন্য রোধ এবং জনমনে শান্তি ও স্বাভাবিক জীবন যাপন নিশ্চিত করার লক্ষ্যে নিরাপত্তা বাহিনী কর্তৃক বিভিন্ন সময়ে অভিযান পরিচালনা করা হয়ে থাকে। চিহ্নিত সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারসহ চাঁদাবাজী বন্ধ এবং অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে প্রায় প্রতিদিনই সন্ত্রাসীদের গোপন আস্থানায় হানা দিচ্ছে নিরাপত্তা বাহিনী। এরই ধারাবাহিকতায় গুইমারা উপজেলার সিংগুলী পাড়া এলাকায় আরও একটি সফল অভিযান পরিচালনা করল সিন্দুকছড়ি সেনা জোনের একটি অভিযান দল।

পার্বত্য শান্তিচুক্তি বিরোধী আঞ্চলিক সশস্ত্র সংগঠন ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট তথা ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুপের একটি শস্ত্র দল দীর্ঘদিন ধরে উক্ত এলাকা ব্যবহার করে তাদের শস্ত্র কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানা যায় যে, আজ (৩০ মে ২০১৯ তারিখ) সন্ত্রাসীদের একটি শস্ত্র দল পার্বত্য চট্টগ্রামে নাশকতার পরিকল্পনা করার উদ্দেশ্যে উক্ত এলাকায় একটি গোপন বৈঠকের আয়োজন করে। এমন গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে আজ দুপুর ১ টায় সিন্দুকছড়ি সেনা জোনের একটি টহল দল তাৎক্ষনিকভাবে সেখানে অভিযান পরিচালনা করে। নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযান দল সন্ত্রাসীদের সম্ভাব্য অবস্থান এলাকার কাছাকাছি পৌঁছালে নিরাপত্তা বাহিনীর উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীদল অতি দ্রুত উক্ত এলাকা ত্যাগ করে গহীন জংগলে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। পরবর্তীতে, নিরাপত্তা বাহিনী সন্ত্রাসীদেরকে ধাওয়া করে এবং উক্ত এলাকা ঘেরাও করে তল্লাশি অভিযান পরিচালনা করে। তল্লাশী শেষে জংগলের ভিতর একটি ব্যাগে ০১ টি এসএমসি (সাব মেশিন কার্বাইন-মেড ইন ইন্ডিয়া) এবং ০৬ রাউন্ড তাজা এ্যামুনিশন উদ্ধার করে। তবে সন্ত্রাসী কাউকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি।  

পার্বত্য চট্টগ্রামকে সন্ত্রাসমুক্ত রাখতে অবৈধ অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে নিরাপত্তাবাহিনীর এরুপ অভিযান চলমান থাকবে বলে সেনা সূত্র হতে জানানো হয়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ